You are here
Home > স্বাস্থ্য > হার্ট অ্যাটাক রোধে দাঁতের যত্ন ….

হার্ট অ্যাটাক রোধে দাঁতের যত্ন ….

Fallback Image

কথায় বলে, দাঁত থাকতে দাঁতের মর্ম বোঝে না কেউ। কিন্তু জানেন কি, দাঁতের মর্ম বুঝলে ভাল থাকবে আপনার হার্টও? এড়ানো যাবে হার্ট অ্যাটাক। দাঁতেই লুকিয়ে হার্টের স্বাস্থ্য।

 

দাঁত সুস্থ না রাখতে পারলে হার্টের দফারফা।

দাঁত থাকতে দাঁতের মর্ম….

 এই প্রবাদটা যে কতটা সত্যি, তা লুকিয়ে রয়েছে আমাদের শরীর-স্বাস্থ্যেই।

মাড়িতে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ জন্ম দেয় বিভিন্ন হার্টের অসুখের। এই ব্যাকটেরিয়া রক্ত বাহিকার মধ্যে ঢুকে রক্ত জমাট বাঁধিয়ে দেয়। আটকে দেয় হার্টের ভালভের মুখ। বেড়ে যায় রক্তচাপ। বাড়িয়ে তোলে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা। অনেক সময় দাঁত বা মাড়ির শৈবালের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে রক্তে।

 

আমেরিকান জার্নাল অফ প্রিভেন্টিভ মেডিসিনের সমীক্ষা জানাচ্ছে, সারা বছর পৃথিবীতে যত মানুষের মৃত্যু হয়, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয় হৃদরোগে। একানব্বই শতাংশ হৃদরোগী মাড়ি এবং দাঁতের রোগে ভোগেন।

 

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন জানাচ্ছে, যাঁদের ক্রনিক মাড়ির সমস্যা আছে, তাঁরা সাধারণত হার্টের সমস্যাতেও ভোগেন। অতিরিক্ত তামাক সেবন, ডায়াবেটিস এবং অপুষ্টি দাঁত ও মাড়ির সমস্যা বাড়ায়। প্রতিক্ষেত্রে ভুক্তভোগীদের হার্টের সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও প্রবল।

 

আমেরিকান জার্নাল অফ প্রিভেন্টিভ মেডিসিনের সমীক্ষা জানাচ্ছে, মুখের ভিতরের অংশ অর্থাত্‍ দাঁত ও মাড়ি যদি সুস্থ না থাকে, তাহলে হার্টের সমস্যা তো বটেই, শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেয়। আর্থারাইটিস বা বাতের সমস্যায় ভুগতে পারেন দেঁতো রোগী। ধীরে ধীরে ডায়াবেটিস এবং পেটের রোগ বাসা বাঁধে শরীরে। শুধু তাই নয়, যে সব মহিলা ক্রনিক দাঁতের রোগে ভোগেন, তাঁরা প্রিম্যাচিওর এবং কম ওজনের সন্তানের জন্ম দিতে পারেন।

 

তাহলে ওষুধ কী? দাঁত ভাল রাখবেন কীভাবে? যাতে সুস্থ থাকে আপনার হৃদয়? চিকিত্সকদের পরামর্শ, নিয়মিত দুবেলা দাঁত মাজতে হবে। ভাল করে কুলকুচি করা প্রয়োজন। ভিটামিন A ও ভিটামিন C যুক্ত খাবার বেশি করে খেতে হবে। তামাকজাত দ্রব্য একদম বাদ। তবে শুধু এই পরামর্শ মানলেই চলবে না, দাঁতের ডাক্তারের কাছে নিয়মিত দাঁত পরীক্ষা করার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিত্সকরা। অতএব,দাঁত থাকতে দাঁতের মর্ম বুঝুন।  তা না হলে হৃদয়ভঙ্গ হতেই পারে। সাবধান।

Similar Articles

Leave a Reply

Top