You are here
Home > জেলার খবর > যৌতুক প্রথা শেষ করার আশায় জীবন বিসর্জন দিচ্ছি !

যৌতুক প্রথা শেষ করার আশায় জীবন বিসর্জন দিচ্ছি !

ভারতের মহারাষ্ট্রের লাতুর জেলায় এ ঘটনাটি ঘটে। বাবা মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার মতো অর্থ জমাতে পারছিলেন না। অপরদিকে আত্মীয়-স্বজনের মাঝে চাপ বাড়ছিল, মেয়ের বয়স পাড় হয়ে যাচ্ছে, এখনো বিয়ে দিচ্ছে না!

বাপ তখন দিশেহারা! তার মুখচোখের দিকে তাকানো যায় না। এমন অবস্থায় বাপকে সেই ‘অশান্তি’ থেকে ‘মুক্তি’ দিতে আদরের কন্যা এক নির্মম পথ বেছে নেয়। গত শুক্রবার নিজদের ফসলের ক্ষেতের কুয়ায় ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করে সে। এটা এমন সময়ে ঘটলো যখন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ডিজিটাল ট্রানজেকশনের সুবাদে ২০ বছর বয়সী এক তরুণীকে ১ কোটি রূপি দিয়ে সম্মানিত করেছেন যা মিডিয়ায় ব্যাপক প্রচার পেয়েছে। বিরোধীরা বলছে, আত্মহননকারী তরুণী শীতল ব্যাঙ্কট বায়ল (২১) রাজ্যের কৃষক সমাজের করুণ বাস্তবতার প্রমাণ দিয়ে গেছেন।

শীতল ব্যাঙ্কট ৩ বছর আগে স্কুলের পড়াশোনা শেষ করেন। তার সুইসাইড নোটে লেখা আছে- আমি আমার বাবার আর্থিক বোঝা হাল্কা করার জন্য এবং আমাদের মারাঠা-কুনবী সম্প্রদায়ে বিরাজমান যৌতুক প্রথা শেষ করার আশায় জীবন বিসর্জন দিচ্ছি। শীতলের এই কথাগুলো রাজ্যের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে তোলপাড় সৃষ্টি করেছে।

Similar Articles

Leave a Reply

Top