You are here
Home > স্বাস্থ্য > গর্ভাবস্থায় মহিলাদের বুদ্ধি এক ধাক্কায় কমে যায়, কিন্তু কেন?

গর্ভাবস্থায় মহিলাদের বুদ্ধি এক ধাক্কায় কমে যায়, কিন্তু কেন?

বীন্দ্রনাথ ঠাকুর লিখেছিলেন, মাতৃত্ব মেয়েদের মধ্যে লুকিয়ে থাকে আপসেই। ওটা না কি মহিলাদের সহজাত এক গুণ! কাউকে তাই বলে দিতে হয় না- মায়ের কাজ কী এবং কতটা! মা হওয়ার সময় এলে মহিলাদের মধ্যে আপনা থেকেই বিকশিত হয় সেই গুণ!

সেই একই কথা সম্প্রতি জানাল বার্সেলোনা ইউনিভার্সিটির এক সমীক্ষা। সঙ্গে যা জানাল, তাতে চমকে উঠতেই হচ্ছে। কেন না, জোর গলায় বলছে সমীক্ষা- গর্ভাবস্থায় না কি মহিলাদের বুদ্ধি এক ধাক্কায় কমে যায় হঠাৎ করেই! তাও একটু-আধটু নয়, বরং অনেকটাই! কেন হয় এরকম?

গবেষকরা জানাচ্ছেন, এই সময়টায় মহিলাদের যাবতীয় চিন্তা-ভাবনা জুড়ে থাকে অনাগত অতিথিটি! ফলে, দিন-রাত তাঁরা ভেবে চলেন মা হওয়ার পরে কী করতে হবে! সেই সঙ্গে সজাগ থাকতে হয় মাতৃত্বকালীন সময়টাতেও- যাতে কোনও অঘটন না ঘটে যায়!

আর তার জেরেই মহিলাদের মস্তিষ্কের যে অংশে গ্রে ম্যাটার থাকে, অর্থাৎ ঘিলুর যে অংশে লুকিয়ে থাকে বুদ্ধিবৃত্তির উপাদান, তা বেশ কিছুটা কমে যায়। গ্রে ম্যাটার কমে গিয়ে সেই জায়গা দখল করে একরকম বিশেষ হরমোন যা বাৎসল্য জাগিয়ে তোলে।

রীতিমতো সমীক্ষা চালিয়েই এমন এক কথা বলতে পারছেন গবেষকরা। তাঁরা ২৫ জন এমন মহিলার উপরে এই সমীক্ষা চালিয়েছেন যাঁরা প্রথমবার মা হতে চলেছেন! পাশাপাশি এরকম আরও ২৫ জন মহিলার উপরেও গবেষণা চালানো হয়েছে যাঁরা গর্ভবতী নন। দুইয়ের তুলনা থেকেই এই সিদ্ধান্তে পৌঁছিয়েছেন গবেষকরা।

তার সঙ্গেই তাঁরা জানিয়েছেন আরও এক বিস্ফোরক তথ্য। গর্ভাবস্থায় এই যে বুদ্ধি কিছুটা কমে যায়, তা চিরস্থায়ী প্রভাব ফেলে মহিলাদের মস্তিষ্কে। মোটামুটি বছর দুয়েক পর্যন্ত তার প্রভাব তো থাকেই! এমনকী, তার পরেও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া চলতে থাকে!

Similar Articles

Leave a Reply

Top