You are here
Home > ইসলাম > পুরুষের পোশাক নারীর পরা কিংবা নারীর পোশাক পুরুষের পরা জায়েজ হবে?

পুরুষের পোশাক নারীর পরা কিংবা নারীর পোশাক পুরুষের পরা জায়েজ হবে?

সলামের দৃষ্টিতে অনেক কিছু হালাল-হারাম আছে। তেমনি পুরুষের পোষাক নারী পরে আর নারীর পোশাষ পুরুষেরা পরে তাহলে সেটা কতটুকু জায়েজ বা নাজায়েজ হবে?

উত্তর : খুব গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন করেছেন। পুরুষের পোশাক নারীর পরা কিংবা নারীর পোশাক পুরুষের পরা হারাম। শুধু হারাম নয়, অভিশপ্ত কাজ। রাসূল (সা.)-এর একটি হাদিস ইমাম তিরমিজি তাঁর সুনানের মধ্যে বর্ণনা করেন, ‘যেসব নারী পুরুষের মতো পোশাক পরে অথবা যেসব পুরুষ নারীদের মতো পোশাক পরে, তাদের ওপর আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের লা’নাত, অভিশাপ।’ এরা অভিশপ্ত কাজে লিপ্ত রয়েছে, এটি হারাম এবং অভিশপ্ত কাজ। হারাম ও অভিশপ্ত কাজ যেগুলো রয়েছে, সেগুলো বড় কবিরা গুনাহের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত। তাই এই কাজ কোনোভাবেই জায়েজ নয়। কোনো সমাজের মধ্যে যদি পুরুষদের সুনির্দিষ্ট পোশাক প্রমাণিত হয়, আবার নারীদের সুনির্দিষ্ট পোশাক প্রমাণিত হয়, তাহলে পুরুষ কোনোভাবেই নারীদের সেই পোশাক পরতে পারবে না। আবার নারীরা পুরুষদের সেই পোশাক কোনোভাবেই পরতে পারবে না।

এখানে প্রশ্ন আসবে একটি বিষয়ে। সেটি হচ্ছে একটি পরিবেশের মধ্যে হতে পারে পুরুষরাও সবুজ রঙের কাপড় পরে, নারীরাও সবুজ রঙের কাপড় পরে। কিন্তু পোশাকের কাটিংটা যদি পুরুষ ও নারীর পার্থক্য হয়ে থাকে, সেখানে সবুজ রঙের পোশাক পরা নিষিদ্ধ নয়। রঙের কোনো সমস্যা নেই। সে ক্ষেত্রে রঙের ব্যাপারে রাসূল (সা.)-এর সুন্নাহর যে নির্দেশনা রয়েছে, সেটিকে অনুসরণ করাই হচ্ছে উত্তম। যদি সম্ভব হয়, সেটা করতে পারে। যেমন : পুরুষদের জন্য রাসূল (সা.)-এর নির্দেশনা হচ্ছে সাদা রঙের পোশাক পরার। সেটা তারা পরতে পারে। আর নারীদের জন্য রাসূল (সা.)-এর নির্দেশনা হচ্ছে, নারীরা সুন্দর ও শালীন পোশাক পরতে পারবে। সে ক্ষেত্রে নির্দেশনা অনুসরণ করাটা উত্তম। এতে কোনো সন্দেহ নেই।

Similar Articles

Leave a Reply

Top